Main Menu

মহিউদ্দিন চৌধুরী নিজ কর্মগুণে মানুষের হৃদয় জয় করেছিলেন – নওফেল

 

মোঃ আলাউদ্দীন :

 

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ সাংগঠনিক সম্পাদক ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল বলেন, মহিউদ্দিন চৌধুরী ছিলেন একজন কর্মবীর। নিজ খুব বাগ্মী, খুব বিদ্যান, খুব বিত্তবান ছিলেন না। কর্মব্যস্ত এই নেতা নিজ কর্মগুণে আপামর মানুষের হৃদয় জয় করেছিলেন। প্রকৃত জননেতা তিনি যিনি অনেক নেতা, সংগঠক সৃষ্টি করেন। তিনি অনেক নেতা সৃষ্টি করেছেন। তারা তার অসমাপ্ত কর্ম সম্পন্ন করবেন। তাই তাকে প্রকৃত জননেতা বলা যায়। আমরা পরিবার থেকে উনাকে বলতাম, এমন ভিখেরির জীবন বেছে নিয়ে কি লাভ? তিনি চট্টগ্রামের বন্দর নগরীর মতো শহরের রাজনীতির নিয়ন্ত্রণ করতেন। চাইলে অনেক বিত্ত বৈভব, সম্পদ অর্জন করতে পারতেন। তিনি তা করেননি। একজন মানুষ ধনী হিসেবে মৃত্যুবরণ করাটা সবচেয়ে দূর্ভাগ্যজনক। এ পৃথিবীতে কেউ ধনী হয়ে মৃত্যুবরণ করে বিখ্যাত হতে পারেননি। বরঞ্চ যারা সম্পদ অর্জন করে বিভিন্ন সেবামূলক কাজ করে অকাতরে অর্থবিলিয়ে দিয়েছেন তারাই পৃথিবীতে স্মরণীয় হয়ে মানুষের মাঝে বেঁচে আছেন। তিনি প্রশ্ন রেখে বলেন, জিয়া অর্ফানেজ এতিমখানার কোন অস্থিত্ব বাংলাদেশের কোথাও নেই। এই অর্ফানেজের নামে বিদেশ থেকে টাকা এনে বেগম জিয়া তার একাউন্টে, কোকো, সাঈদ ইস্কান্দর, সাদেক হোসেন খোকার ব্যাংক হিসেবে রেখে ব্যক্তিগত কাজে খরচ করেছেন। এটা কি দূর্নীতি নয়? আদালতে মামলা চলছে। তিনি বারো মিনিটের রাস্তা আদালতে হাজির হতে চান না। অথচ রোহিঙ্গা শরণার্থী পরিদর্শনের মতো পিকনিকের কর্মসূচী দিয়ে হাজার কিলোমিটার ঘুরে বেড়ান। আদালতের প্রসঙ্গ আসলে অসুস্থতার অজুহাত দেখান। এদেশের মানুষের কাছে আর কত মিথ্যে রাজনীতি করবেন? উপরোক্ত কথা গুলো বক্সিরহাট ওয়ার্ড আওয়ামীলীগ আয়োজিত সাবেক মেয়র, নগর আওয়ামী লীগ সভাপতি আলহাজ্ব এ.বি.এম মহিউদ্দিন চৌধুরী’র শোকসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখতে গিয়ে তিনি বলেন। খাতুনগঞ্জ হক মার্কেট চত্বরে এই সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন নগর আওয়ামী লীগ সদস্য, ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ সভাপতি আলহাজ্ব নুরুল আমিন শান্তি সওদাগর। কোতোয়ালী থানা আওয়ামী লীগ যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হাজী মো: জাহাঙ্গির আলমের পরিচালনায় প্রধান বক্তা ছিলেন নগর যুবলীগ যুগ্ম আহ্বায়ক ফরিদ মাহমুদ। বিশেষ অতিথি ছিলেন বক্সিরহাট ওয়ার্ড কাউন্সিলর হাজী মো: নুরুল হক। আলোচনা অংশ নেন চট্টগ্রাম মহানগর যুবলীগ সদস্য এস.এম. সাঈদ সুমন, শেখ নাছির আহমেদ, নগর ছাত্রলীগের সাবেক দপ্তর সম্পাদক আরশাদুল আলম বাচ্চু। শোকসভায় নেতৃবৃন্দের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন নগর যুবলীগের সাবেক সম্পাদকম-রীর সদস্য বখতিয়ার ফারুক, যুবনেতা আলহাজ্ব জাবেদ হোসেন, কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাবেক নেতা মো: ইলিয়াছ, ইয়াছিন আরাফাত কচি, ওয়ার্ড আওয়ামীলীগ নেতা শওকতুল ইসলাম দুলাল, আজিজুল ইসলাম, মিঠু চৌধুরী, ধিমান দাশগুপ্ত, অশ্রীত কুমার বিশ্বাস, ১৯নং ওয়ার্ড যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক হারুনুর রশিদ আলম, ৩৫নং ওয়ার্ড যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক মো: আতিক উল্লাহ, সহ-সভাপতি আকতার হোসেন, মো: মহিউদ্দিন জনি, যুগ্ম সম্পাদক এস.এম আব্বাস উদ্দিন, ছাত্রনেতা রফিকুল আলম রবু, সাইফুদ্দিন সাঈদ, জাহিদুল ইসলাম, নুর মোহাম্মদ ইমন, আবদুর রহিম চৌধুরী, রুবেল হোসেন প্রমুখ। সভাশেষে আলহাজ্ব এ.বি.এম মহিউদ্দিন চৌধুরী’র আত্মার মাগফেরাত কামনা করে বিশেষ মুনাজাত পরিচালনা করেন মাওলানা মোহাম্মদ ইসহাক।






Related News

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *