Main Menu

বেনজির হত্যার ১০ বছর পর দায় স্বীকার করেছে তালেবান ★ বাংলারদর্পন

 

ডেস্ক রিপোর্ট :

১৬ জানুয়ারি ২০১৮।

পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেনজির ভুট্টো হত্যাকাণ্ডের ১০ বছরের বেশি সময় পর প্রথমবারের মতো এ ঘটনার দায় স্বীকার করেছে জঙ্গি সংগঠন তেহরিক-ই-তালেবান পাকিস্তান (টিটিপি)। টিটিপি নেতা আবু মনসুর অসিম মুফতি নূর ওয়ালির নতুন বইয়ে এ দায় স্বীকার করা হয়েছে।

২০০৭ সালের ২৭ ডিসেম্বর রাওয়ালপিন্ডিতে নির্বাচনী জনসভায় আত্মঘাতী হামলায় নিহত হন বেনজির ভুট্টো।

‘ইনকিলাব মেহসুদ সাউথ ওয়াজিরিস্তান-ফ্রম ব্রিটিশরাজ টু আমেরিকান ইম্পেরিয়ালিজম’ নামের বইটির উদ্ধৃতি দিয়ে গতকাল সোমবার ডেইলি টাইমস-এর প্রতিবেদনে বলা হয়, ‘বিলাল (সাঈদ বা ইকরামুল্লাহ নামেও পরিচিত) তাঁর কাছে থাকা পিস্তল দিয়ে প্রথমে বেনজির ভুট্টোকে গুলি করলে সেটা তাঁর গলায় গিয়ে আঘাত হানে। তারপর তিনি জনসভায় আসা লোকদের মাঝেই তাঁর বিস্ফোরক জ্যাকেট খুলে ফেলে বিস্ফোরণ ঘটান এবং নিজেকে উড়িয়ে দেন।’

বইতে আরও বলা হয়েছে, তালেবানের সদস্যরা ২০০৭ সালের অক্টোবরে করাচিতে বেনজির ভুট্টোর আরেক জনসভায়ও আত্মঘাতী হামলা চালায়। এতে ১৪০ জনের মতো মানুষ মারা গেলেও বেঁচে যান সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেনজির। করাচিতে এই রক্তাক্ত হামলার পরও সে সময়কার স্বৈরশাসক জেনারেল পারভেজ মোশাররফের সরকার বেনজির ভুট্টোর জনসভায় প্রয়োজনীয় নিরাপত্তাব্যবস্থা গ্রহণ করেনি।

বেনজির ভুট্টো হত্যাকাণ্ডের পরপরই এ জন্য টিটিপিকে দায়ী করেন পারভেজ মোশাররফও। তবে গত বছরের আগস্টে বেনজির হত্যা মামলা থেকে সন্দেহভাজন পাঁচ পাকিস্তানি তালেবান জঙ্গিকে খালাস দেওয়া হয়।






Related News

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *